কুষ্টিয়ার খোকসায় পরকিয়ার জেরে নাতীছেলের ছুরিকাঘাতে নানা নিহত

(নাতীছেলে ও নিহতের পুত্রবধু আটক)

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার সমসপুর ইউনিয়নের সন্তোষপুর গ্রামে নাতীছেলের ছুরিকাঘাতে নানা মজিবুর রহমান (৭৫) নিহত হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্ত নাতীছেলে নাঈম (২১) ও নিহতের পুত্রবধু সামিয়া (৩৪) কে আটক করেছে। পুলিশ বলছে, গেল রাতে আটককৃত নাঈমের সাথে তার মামী সামিয়ার অবৈধ পরকিয়ার সম্পর্ক দেখে ফেলায় মজিবুর রহমানকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে নাতীছেলে নাঈম।


প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নাঈম সব ঘটনা স্বীকার করেছে বলে নিশ্চিত করে খোকসা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম মেহেদী মাসুদ জানান, বেশকিছুদিন ধরেই নিহত মজিবুর রহমানের বড় মেয়ের বড় ছেলে নাঈমের সাথে মেজ ছেলের স্ত্রী সামিয়ার মধ্যে অবৈধ পরকিয়ার সম্পর্ক চলছিল। রবিবার গেল রাতে ঢাকা থেকে এসে নাঈম নানা বাড়ি যায়। মেজ মামা মাসুদের অনুপস্থিতিতে সে তার স্ত্রী সামিয়ার সাথে পরকিয়ায় লিপ্ত হয়। এসময় নানা মজিবুর রহমান দেখে ফেলে। বিষয়টি প্রকাশ হয়ে যাবে এই ভয়ে নাঈম তার নানাকে ঘর থেকে বারান্দায় বের করে এনে বুকে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়। অন্যরা মজিবুর রহমানকে উদ্ধার করে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন।


খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই নাঈমের নিজবাড়ী কুমারখালী থেকে তাকে আটক করে, এবং তার স্বীকারোক্তিতে নিহত মজিবুর রহমানের বাড়ী থেকে তার পুত্রবধু সামিয়াকে আটক করে থানায় নেয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ হত্যাকান্ডের বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা ওসি।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin
Share:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *