ছেলেই সেরা আমির খানের বায়োপিকে !

অনলাইন ডেস্ক: তারকার সন্তান হলে কত সুবিধা! বাবা-মায়ের পায়ের ছাপ ধরে সহজেই এগিয়ে যাওয়া যায়। বাড়তি সুযোগ পাওয়া যায় সবখানে। বিশেষ করে বলিউডে এমন রেওয়াজ চালু আছে। দেখা গেছে, চলচ্চিত্রে আসার আগেই তারকার সন্তানেরা আলোচিত হচ্ছেন। এমনকি কেউ কেউ তো জন্মলগ্ন থেকেই আলোচিত। এর মধ্যেও কোনো কোনো তারকার সন্তান থাকেন অগোচরে, আলোচনার বাইরে। তাঁদের অন্যতম আমির খানের বড় ছেলে জুনাইদ। তাঁকে নিয়ে যদিও কোনো আলোচনা নেই; কিন্তু বাবা আমির মনে করেন, তাঁর জীবনীভিত্তিক চলচ্চিত্রে তাঁর চরিত্রে জোনাইদ হবে সেরা পছন্দ।

আমির খানের আগের সংসারের দুই সন্তান জুনাইদ খান ও ইরা খান। তাঁদের নিয়ে তেমন আলোচনা শোনা যায় না। ইদানীং তারকা বাবার সঙ্গে কোথাও কোথাও যেতে হচ্ছে তাঁদের। উপস্থিত থাকতে হচ্ছে বিনোদন অঙ্গনের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে। সেখান থেকেই তাঁদের নিয়ে উৎসাহ তৈরি হয়েছে অনেকের। বিশেষ করে সংবাদমাধ্যমের।

আমিরের মেয়ে ইরা ছবি আঁকেন। জুনাইদ হতে চান অভিনয়শিল্পী। কিন্তু কবে সেটা? আমির খান ও কিরণ রাও প্রযোজিত তথ্যচিত্র ‘রুবারু রোশনি’র প্রচারণার সময় জানতে চাওয়া হয় আমিরের কাছে। তিনি জানিয়েছেন, জুনাইদ চলচ্চিত্রে আসতে চান। তবে ছবি করার আগে আলোচনায় আসতে চান না। সন্তানকে কীভাবে দেখতে চান আমির, অভিনয়শিল্পী, নাকি পরিচালক? আমির খান বলেছেন, ‘জোনাইদ অভিনয় করতে চায়।’

জুনাইদের জন্য ভালো চিত্রনাট্য খোঁজা হচ্ছে। তাঁকে মানাবে, এমন একটি চরিত্র পেলেই তিনি কাজ শুরু করবেন। ছেলের অভিনয় দেখে আমির সন্তুষ্ট। ভালো একটা গল্প হলেই কাজে নেমে পড়বেন জনপ্রিয় নায়কের বড় ছেলে। আমির খান বলেন, ‘স্ক্রিন টেস্ট জিনিসটায় আমি খুব বিশ্বাস করি। জুনাইদ যদি স্ক্রিন টেস্টে পাস করে, তাহলে বুঝব, সে পারবে। স্ক্রিন টেস্টে যদি পাস করতে না পারে, তাহলে হবে না।’

আমিরের জীবনীভিত্তিক ছবি হলে জুনাইদ তাতে অভিনয় করতে পারবেন? এমন প্রশ্নে আমির খান বলেছেন, ‘অবশ্যই পারবে। আমার বায়োপিক হলে আমার চরিত্রে জুনাইদ হবে সেরা পছন্দ।’

সম্প্রতি আরেকটি বড় কাজে নেমেছেন বলিউড তারকা আমির খান। ‘মহাভারত’ নামের একটি চিত্রনাট্যে কৃষ্ণের চরিত্রে অভিনয় করবেন তিনি। তবে এখন পর্যন্ত জানা যায়নি, ‘মহাভারত’ কি চলচ্চিত্র হবে, না ওয়েব সিরিজ? তবে আমির খান রয়েছেন পূর্ণ প্রস্তুতিতে। এ বছরই শুরু হবে এই মহাকাব্যের শুটিং। বলিউড হাঙ্গামা

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin
Share:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *