পিএসজির যত আয়োজন, নেইমারকে ‘ভদ্র’ রাখতে

ইন্টারনেট ডেস্ক: ছোটবেলায় স্কুলে পড়ার সময় সচ্চরিত্রবান হয়ে থাকার জন্য বছর শেষে আলাদা পুরস্কার দেওয়া হতো, মনে আছে? অনেক স্কুলে এই পুরস্কারকে বলা হতো ‘আদর্শ চরিত্র’ পুরস্কার। এখন তো মনে হচ্ছে, ইউরোপিয়ান ফুটবলে বিভিন্ন ক্লাবেও খেলোয়াড়দের সচ্চরিত্রবান থাকার জন্য আলাদা বোনাসের গোপন ব্যবস্থা রয়েছে। ফরাসি চ্যানেল ফ্রান্স-২–এর প্রতিবেদনে বেরিয়ে এসেছে, মাঠ ও মাঠের বাইরে নম্রভদ্র থাকার জন্য নেইমারকে নিয়মিত পুরস্কৃত করছে তাঁর ক্লাব পিএসজি।এমনিতেই গত বছর এন্তার অর্থের বিনিময়ে বার্সেলোনা থেকে বর্তমান সময়ে ব্রাজিলিয়ান ফুটবলের বড় তারকা নেইমারকে দলে নিয়ে এসেছে ফরাসি ক্লাব পিএসজি। ২২২ মিলিয়ন ইউরো ট্রান্সফার ফির বিনিময়ে তাঁকে কিনেছে পিএসজি। দলটির হয়ে খেলার জন্য প্রতিবছর ৩৬.৮ মিলিয়ন ইউরো করে পকেটে পুরছেন নেইমার। শোনা যাচ্ছে, খেলার জন্য শুধু সাপ্তাহিক বেতনই নয়, মাঠ ও মাঠের বাইরে নম্রভদ্র থাকতে নেইমারের জন্য আলাদা কিছু বোনাসের ব্যবস্থা করেছে পিএসজি। যেমন: দলের কোচের কোনো সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মত না দেওয়ার জন্য অর্থাৎ ড্রেসিংরুমে অশান্তি সৃষ্টি না করার জন্য প্রতিবছর ২.৫ মিলিয়ন ইউরো, ম্যাচের শুরু ও শেষে মাঠের দর্শকদের দিকে তাকিয়ে অভিবাদন দেওয়ার জন্য প্রতিবছর ৩ লাখ ৭৫ হাজার ইউরো, ব্যালন ডি’অর তালিকায় সেরা তিনে থাকতে পারলে ২ মিলিয়ন ইউরো—এভাবেই একের পর এক বোনাস পেয়ে যাবেন নেইমার।তবে এই পুরস্কার শুধু নেইমারের জন্যই নয়, পিএসজির প্রত্যেক খেলোয়াড়ই পাচ্ছেন। কিন্তু স্বাভাবিকভাবেই নেইমারের পুরস্কারের অর্থমূল্য সবচেয়ে বেশি। যেমন ধরুন, দর্শক অভিবাদন দেওয়ার জন্য থিয়াগো সিলভা বছরে পান ৩৩ হাজার ইউরো। ফরাসি লিগে খেলোয়াড়দের অশালীন ব্যবহারের জন্য শাস্তি হিসেবে জরিমানা করার সে রকম কোনো ব্যবস্থা নেই, তাই নিজেদের খেলোয়াড়দের ভদ্র রাখতে পিএসজি স্বপ্রণোদিত হয়েই এই ব্যবস্থা নিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.