লেবুর রসেই কিডনির পাথর থেকে মুক্তি!

অনলাইন ডেস্ক: লেবু একটি সহজ প্রাপ্য বস্তু। আমরাই প্রায় প্রতিদিনই বিভিন্ন খাবারের সঙ্গে লেবুর রস নিয়ে থাকি। কেননা, এর রয়েছে নানা গুণ। কিডনিতে পাথর হলে তা অপসারণেও এর রয়েছে অসাধারণ ক্ষমতা।

জানা গেছে, পাতিলেবুর রস আর এক গ্লাস পানি। এই দু’টি জিনিস একসঙ্গে মিশিয়ে পান করলেই মুক্তি পেতে পারেন কিডনি পাথরের মতো জটিল রোগ থেকে। এমনটা বলছেন বিশেষজ্ঞরা। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুধু কিডনি পাথর থেকেই মুক্তি মিলবে এমন নয়। পাতিলেবুর রস আর এক গ্লাস পানি পারে আপনাকে আমাকে হাজারো রোগ থেকে মুক্তি দিতে।

এতে আরও বলা হয়েছে, প্রত্যেক বাঙালির হেঁশেলেই থাকে পাতিলেবু। কিন্তু এর উপকারিতা সম্পর্কে ক’জন বাঙালিই বা অবহিত? জানেন কি, খালি পেটে প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস পানিতে অর্ধেক পাতিলেবুর রস মিশিয়ে পান করলে মুক্তি পেতে পারেন হাজারো সমস্যা থেকে। বিশেষ করে কিডনির পাথর।

কিডনি স্টোন হতে পারে ৪ রকম। এক রকমের কিডনির পাথর বংশানুক্রমে হয়। অন্য ৩ রকমের কিডনি পাথর ৮০ শতাংশ ক্যালসিয়ামভিত্তিক। পরিবারের কারও কিডনিতে পাথর হয়ে থাকলে কিডনিতে স্টোন হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। দীর্ঘদিনের কিডনির রোগ থাকলে কিডনিতে পাথর হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পাতিলেবুর রসে থাকে সাইট্রিক এসিড। এটা ক্যালসিয়ামজাত পাথরগুলোকে তৈরি হতে দেয় না। এছাড়াও বড় আকারের পাথরগুলিকে সাইট্রিক এসিড ছোট টুকরোতে ভেঙে দিতে পারে। যাতে সেগুলো সহজেই সরু মূত্রনালি দিয়ে বেরিয়ে যেতে পারে এবং ব্যথা কমায়। 

শুধু কিডনির পাথরই নয়। পাতিলেবুর রসে রয়েছে আরও নানা গুণ। শক্তি বাড়ায় পাতিলেবুর রস। ঘন ঘন সর্দি-কাশিতে উপকারী। এক গ্লাস পানিতে আধখানা পাতিলেবুর রস গুলিয়ে এক চামচ মধু মিশিয়ে খেলে বন্ধ নাক থেকে মুক্তি মেলে। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। ওজন কমায়। দাঁতব্যথা কমায়। ভাইরাসজনিত সংক্রমণ প্রতিরোধ করে। চোখ ভাল রাখে। ত্বক পরিষ্কার রাখে। লিভার পরিষ্কার রাখে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.