ভারতের রাজনৈতিক অঙ্গনে প্রণব মুখার্জির মৃত্যুতে শোকের ছায়া

অনলাইন ডেস্ক : ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির মৃত্যুতে ভারতের রাজনৈতিক অঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। দিল্লির সেনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রণব মুখার্জি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেসের নেতা রাহুল গান্ধী, দেশটির বিজেপি নেতা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট, আসামের মন্ত্রী হিমান্ত বিশ্ব শর্মাসহ বিজেপি, কংগ্রেসের নেতাকর্মীরা।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি টুইটারে লিখেছেন, ‘ভারতরত্ন শ্রী প্রণব মুখার্জীর মৃত্যুতে ভারত শোক প্রকাশ করছে। তিনি দেশের উন্নয়নের গতিপথে অসামান্য অবদান রেখে গিয়েছেন।’
শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। প্রণব মুখার্জি কংগ্রেসের রাজনীতি করলেও ভারতে দল-মত নির্বিশেষে সবাই শ্রদ্ধা করতেন। প্রণব মুখার্জির মৃত্যুকে ‘ব্যক্তিগত ক্ষতি’ আখ্যা দিয়ে টুইট করেছেন বিজেপি সরকারের মন্ত্রী রাজনাথ সিং। টুইটারে তিনি লিখেছেন, জনজীবনে প্রণবদার অবদান অপরিসীম। সমাজের সব শ্রেণির মানুষ তাকে শ্রদ্ধা করতেন। তার মৃত্যুতে ব্যক্তিগত ক্ষতি হয়ে গেল। ভারতের ইতিহাস, কূটনীতি, জননীতি এমনকি প্রতিরক্ষা বিষয়েও তার গভীর জ্ঞান ছিল।

বিজেপি মন্ত্রী অমিত শাহ টুইটারে লিখেছেন, ভারতরত্ন শ্রী প্রণব মুখার্জীর মৃত্যুতে গভীরভাবে শোকাহত। তার ক্যারিয়ার দেশের জন্য অনেক বেশি সম্মানের। তিনি একজন অভিজ্ঞ নেতা যিনি দেশকে মন-প্রাণ উৎসর্গ করে সেবা করেছেন।

উল্লেখ্য, ৯ আগস্ট রবিবার রাতে প্রণব মুখার্জি বাথরুমে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান। সেদিন রাত ১২টায় তাঁকে দিল্লি ক্যান্টনমেন্টের সেনা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর মস্তিষ্কে অপারেশন হয়, তার আগে রীতি মেনে কোভিড পরীক্ষা করা হলে দেখা যায় তিনি পজিটিভ।

উল্লেখ্য, প্রণব মুখার্জি ২০১২ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ভারতের রাষ্ট্রপতি ছিলেন। এর আগে একাধিক মন্ত্রণালয়ে তিনি কৃতিত্বের সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.