১৫৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কুষ্টিয়ার শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে তিনদিন ব্যপী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন

মো:সালমান শাহেদ: ২৫বৈশাখ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কুষ্টিয়ার স্মৃতিবিজড়িত শিলাইদহ কুঠিবাড়িতে তিনদিন ব্যপী অনুষ্ঠানমালার আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। আজ বুধবার সকালে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে এই অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করেন, কুষ্টিয়া ১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য আকম সরওয়ার জাহান বাদশা। এর আগে উদ্বোধনী সংগীতের মাধ্যেমে সুভ সূচনা করা হয়। কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসন ও সংস্কৃতিক মন্ত্রনালয় যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেনের সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পরিচালক -২ ওয়াহিদা মুসাররত অনীতা, কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কেএম জহিরুল ইসলাম প্রমূখ।

প্রধান আলোচক ছিলেন কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের আধ্যাপক সরওয়ার মুর্শেদ। এদিকে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ১৫৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ইতিমধ্যেই কুঠিবাড়ীতে রবীন্দ্র প্রেমীরা এসে ভীড় জমিয়েছেন। রমজানের কারনে রাতের পরিবর্তে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত মূল মঞ্চে চলবে রবীন্দ্রনাথের জীবন-কর্ম নিয়ে আলোচনা সভা ও তার গান। কুঠিবাড়ীর সামনের ফাঁকা জায়গায় বসেছে গ্রামীন মেলা। আর এই অনুষ্ঠানকে নির্বিঘ্ন করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা।


উল্লেখ্য, বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বাংলা ভাষাকে পরিচিত করেছেন বিশ্বদরবারে। নিভূত বাংলার প্রত্যন্ত অঞ্চল কুষ্টিয়ার শিলাইদহে কবির জীবনের বেশকিছু মূল্যবান সময় কেটেছে।


নিরিবিলি পরিবেশ, জমিদারী আর ব্যবসার কারনে বার বার কুষ্টিয়ার এই কুঠিবাড়িতে ফিরে আসতেন রবী ঠাকুর। এখানে বসে তিনি রচিত করেছেন নোবেল পুরষ্কার বিজয়ী গীতাঞ্জলী কাব্য। এছাড়াও তিনি এখানে বসেই আমাদের জাতীয় সঙ্গীতসহ অসংখ্য কালজয়ী সাহিত্য রচনা করেছেন। কুঠিবাড়িতে সংরক্ষন আছে সেসব দিনের নানা স্মৃতি।

Facebooktwitterredditpinterestlinkedin
Share:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *