হাসপাতাল থেকে গায়েব রোগীর কাটা আঙুল

সাব্বির হাসান : ক্রিকেট বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল নিয়েই বুধবার মজেছিলেন ভারতের ক্রিকেটপ্রেমীরা। কিন্তু সন্ধ্যায় যখন ব্যাটে-বলে ঝড় উঠেছে, ঠিক তখনই দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হন দেশটির হাওড়ার বাসিন্দা নীলোৎপল বিশ্বাস। শিবপুরের বিই কলেজের সামনে দুর্ঘটনায় হাতের একটি আঙুল বাদ যায় তার। দ্রুতই কাটা আঙুলটি সঙ্গে নিয়েই রোগীকে একবালপুরের সিএমআরআই হাসপাতালে ছুটে আসেন রোগীর পরিজনেরা। 

জরুরি বিভাগে চিকিৎসা হয় আহত ব্যক্তির। কাটা আঙুলটি আপাতত হাসপাতালেই সংরক্ষিত করে রাখা থাকবে বলেই জানান চিকিৎসকরা। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ অস্ত্রোপচার করে ওই আঙুলটি নীলোৎপলের হাতে জোড়া লাগানোরও আশ্বাস দেন তারা।চিকিৎসকদের কথামতো বৃহস্পতিবার সকালে নির্ধারিত সময়ে দুর্ঘটনাগ্রস্ত যুবক নীলোৎপলের স্ত্রী হাসপাতালে পৌঁছন। স্বামীর অস্ত্রোপচারের প্রস্তুতি চলছে বলেই দেখেন তিনি। কিন্তু সাড়ে ৯টা বেজে গেলেও অস্ত্রোপচার শুরু না হওয়ায় হাসপাতাল কর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন নীলোৎপলের স্ত্রী। তার দাবি, দেরির কারণ সম্পর্কে সদুত্তর পাননি। আচমকা ওই মহিলা কানাঘুষোয় শুনতে পান, তার স্বামীর আঙুল খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। বেশ কিছুক্ষণ পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আঙুল হারিয়ে যাওয়ার কথা স্বীকার করে নেয়। 

আহত ব্যক্তির স্ত্রীর অভিযোগ, বুধবার সন্ধ্যায় স্বামীকে হাসপাতালে নিয়ে আসার সময় তিনি দেখেন বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল দেখতেই ব্যস্ত রয়েছেন চিকিৎসক-হাসপাতাল কর্মী প্রায় সকলেই। গাফিলতির জেরেই নীলোৎপল বিশ্বাসের আঙুল হারিয়ে গিয়েছে বলেই অভিযোগ তার।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের উদাসীনতায় স্তম্ভিত রোগীর পরিজনেরা। বাধ্য হয়ে আলিপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন তারা। সিসিটিভি ফুটেজ খতিয়ে দেখে ঘটনার তদন্ত শুরু করা হয়েছে বলেই দাবি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin
Share:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *