মঞ্চেই মৃত্যু অভিনেতার হাসাতে হাসাতে

সেই হল-ভরা দর্শক। সেই কৌতুকাভিনেতা। সেই কৌতুক করতে করতেই মঞ্চে নিথর হয়ে যাওয়া। তিন মাসের ব্যবধানে ফের একই রকম ঘটনা! 

সে বার হয়েছিল লন্ডনে। আর এ বার ভারতীয় বংশোদ্ভূত কৌতুকাভিনেতা মঞ্জুনাথ নায়ডু দুবাইয়ের একটি হোটেলের মঞ্চে। গত শুক্রবার প্রাণ হারালেন হৃদ‌রোগে আক্রান্ত হয়ে মঞ্জুনাথ নায়ডু। বয়স মাত্র ৩৬। উদ্বেগে ভুগছেন বলে জানিয়েছিলেন মঞ্জুনাথ। শুক্রবার লোক হাসাতে হাসাতে মঞ্চেও সে কথা বলেছিলেন। অভিনয় করতে করতেই পাশে রাখা একটা বেঞ্চে হঠাৎ করে বসে পড়েছিলেন। 

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, বসার পরে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে মঞ্চেই লুটিয়ে পড়েন মঞ্জুনাথ। যদিও তখনও দর্শকরা ভাবছেন, সেটাও শিল্পীর কৌতুকেরই অংশ। যার জন্য ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে কোনও ব্যবস্থা নেওয়াও সম্ভব হয়নি। ঠিক যেমনটা ঘটেছিল ব্রিটিশ কৌতুকশিল্পী ইয়ান কগনিটোর ক্ষেত্রে। 

ষাটোর্ধ্ব এই শিল্পী গত ১৪ এপ্রিল মঞ্চে অভিনয় করতে করতেই মারা যান। সে বারও দর্শকরা ভেবেছিলেন, মজা করছেন কগনিটো।

মঞ্জুনাথের জন্ম আবু ধাবিতে। পরে চলে আসেন দুবাই। তার বন্ধু এবং সহ-কৌতুকশিল্পী মিকদাদ দোহাদওয়ালা বলেছেন, ‘সে দিনের অনুষ্ঠানের একেবারে শেষ পর্বে ছিল ওর কৌতুক। মঞ্চে উঠে গল্প বলে রোজকার মতোই লোক হাসাচ্ছিল। বাবা আর পরিবারের কথাও বলছিল। এর পরেই বলল ও উদ্বেগে ভুগছে ইদানীং। এই গল্প শুরুর এক মিনিটের মধ্যেই সব শেষ!

তিন মিনিট ওভাবেই পড়েছিলেন তিনি। যত ক্ষণে বোঝা গেল, কিছু একটা ঘটে গিয়েছে, প্যারামেডিকেরা এসেও কিছু করতে পারেননি। হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। সূত্র : আনন্দবাজার

Leave a Reply

Your email address will not be published.