র‌্যাবের কঠোর বার্তা, ভুল তথ্য বা ভিডিও আপলোড

অনলাইন ডেস্ক :

 

এলিট ফোর্স র‌্যাবের মুখপাত্র কমান্ডার খন্দকার আল মঈন বলেছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম (ফেসবুক) ব্যবহার করে যারা ভুল বা মিথ্যা তথ্য সম্বলিত কনটেন্ট কিংবা ভিডিও প্রচার করছেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সেভাবেই গোয়েন্দা নজরদারি কিংবা মনিটরিং অব্যাহত রেখেছে র‌্যাব।

 

বুধবার (২০ অক্টোবর) এক বার্তায় তিনি আরো বলেন, যারা এ ধরনের অপতৎপরতায় লিপ্ত তাদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে। তাদের গ্রেফতার ও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

তিনি বলেন, সম্প্রতি একটি স্বার্থান্বেষী মহল দেশে এবং বিদেশে বসে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের চক্রান্ত চেষ্টা করে যাচ্ছে। তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে বিভিন্ন ধরনের মিথ্যা তথ্য প্রচারের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও কনটেন্ট ছড়িয়ে দিয়ে জনমনে ভীতি সঞ্চার করছে।

খন্দকার মইন বলেন, চক্রটি আগেও বিভিন্ন সময় ঘটে যাওয়া বিভিন্ন ঘটনার ভিডিও কনটেন্ট ‘সাম্প্রতিক ঘটে যাওয়া কিছু অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার’ ভিডিও বলে প্রচারের চেষ্টা করছে। এমনকি পার্শ্ববর্তী দেশের একটি অগ্নিকাণ্ডের ভিডিও কেউ রংপুরের একটি অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার ভিডিও বলে প্রচার করছে। এ সংক্রান্ত তথ্য এবং ভিডিও বিভ্রান্তি ছড়িয়ে যারা অপপ্রচার চালাচ্ছেন তাদের কোনোভাবেই ছাড় দেওয়া হবে না।

 

তিনি বলেন, যারা বিভিন্ন মন্দিরে ও পূজামণ্ডপে হামলায় সরাসরি জড়িত, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভুয়া ভিডিও কনটেন্ট আপলোড করছেন; কনটেন্টগুলো শেয়ার এবং অযাচিত মন্তব্য করছেন, যারা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে অপরাধ করছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ঢাকা, কুমিল্লা, ফেনী, রংপুর, রূপগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব। এ ধরনের ঘটনার মূলহোতা, পেছন থেকে ইন্ধন দেওয়া অন্তত ২২ জনকে ইতোমধ্যেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদেরও গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.