কলেজ শিক্ষকের হাতের কব্জি কেটে নিলো দুর্বৃত্তরা

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি :

 

কুষ্টিয়ায় তোফাজ্জেল বিশ্বাস (৫২) নামে এক কলেজ শিক্ষকের ডান হাতের কব্জি কেটে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। এছাড়া তার শরীরে বিভিন্ন অংশে কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার জিয়ারখী ইউনিয়নের বংশীতলা নতুন ব্রিজের উপর এ ঘটনা ঘটে।

 

স্থানীয়রা জানান, বংশীতলা নতুন ব্রিজের উপর রাস্তার কাজে ব্যবহৃত রোলার মেশিন দাঁড়ানো ছিল। সেখানে ১০-১৫ জন সশ্রস্ত্র সন্ত্রাসী আগে থেকেই লুকিয়ে ছিল। এ সময় অধ্যাপক তোফাজ্জেল তার নিজ বাড়ি শালঘর মধুয়া থেকে কুষ্টিয়া শহরের দিকে আসার পথে বংশীতলা ব্রিজের উপর পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা হামলা চালায়। এসময় তার ডান হাতের কব্জি কেটে বিচ্ছিন্ন করে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে পালিয়ে যায়।

 

পরে এলাকাবাসী ছুটে এসে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। বিকেলে এই রিপোর্ট লেখার সময় হাসপাতালে ওই শিক্ষকের অপারেশন চলছিল। তবে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানান, শরীরে প্রচণ্ড রক্তক্ষরণ হওয়ায় তার অবস্থা সংকটাপন্ন।

 

হামলার শিকার আহত কলেজ শিক্ষক তোফাজ্জেল বিশ্বাস কুমারখালী বাঁশগ্রাম আলাউদ্দিন আহম্মেদ ডিগ্রি কলেজের অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এবং ওই উপজেলার বাগুলাট ইউনিয়নের শালঘর মধুয়া এলাকার জালা বিশ্বাসের ছেলে।

 

ভুক্তভোগী কলেজ শিক্ষকের ছেলে হাসিফ হাসপাতালে সাংবাদিকদের জানান, এলাকায় প্রতিপক্ষ একটি গ্রুপের সাথে তাদের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। প্রতিপক্ষরাই সুযোগ পেয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে এ হামলা চালিয়েছে।

 

এ ঘটনার পর কুমারখালী উপজেলার শালঘর মধুয়া গ্রামে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। সংঘর্ষের আশঙ্কায় ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

 

কুমারখালী থানার (ওসি) কামরুজ্জামান তালুকদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। তবে দোষীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.