কুষ্টিয়ায় এক গ্রামে ৪০ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত, তৎপর প্রশাসন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার সেই ছোট্ট গ্রামে ছড়িয়ে পড়া ডেঙ্গু প্রশাসনের ব্যাপক তৎপরতায় নিয়ন্ত্রনে এসেছে। নতুন করে আর ডেঙ্গু আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি। বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচার ও প্রকাশ হওয়ার পর প্রশাসন নড়েচড়ে বসেছে। অবশেষে মশা মারতে বিভিন্ন ধরণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। দৌলতপুরের ছাতারপাড়ার দাঁড়পাড়া গ্রামে আজ শুক্রবার পর্যন্ত ৪০জন ডেঙ্গুু রোগী শনাক্ত হয়েছে। আরও ২জন জ্বরে আক্রান্ত হলে তাদের পরীক্ষার জন্য কুষ্টিয়ায় প্রেরণ করা হয়েছে।

ছোট্ট একটি গ্রামের ৪০জন শিশুসহ বিভিন্ন বয়সী ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হওয়ায় ওই গ্রামের সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে প্রশাসন তৎপর হয়। ঝোপ-জঙ্গল পরিস্কার করার পাশাপাশি মশা বা এডিস মশার লার্ভা মারতে ওষুধ ছিটানোসহ বিভিন্ন ধরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। এরফলে আতঙ্কগ্রস্থ গ্রামের সাধারণ মানুষের মধ্যে স্বস্তি ফেরে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন ডেঙ্গু আক্রান্ত দাঁড়পাড়া গ্রামে পরিদর্শনে গিয়ে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রনে সবধরণের ব্যবস্থা গ্রহণের আস্শাস দিয়েছেন। সেই সাথে তিনি গ্রামবাসীকে নিজ নিজ বাড়ির আঙিনা ও বাড়ির আশপাশ পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার আহ্বান জানিয়েছেন। এছাড়াও স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে মেডিকেল টিম গঠন করে ওই গ্রামে সার্বক্ষনিক তদারকি করা হচ্ছে বলে কুষ্টিয়া ভারপ্রাপ্ত সিভিল সার্জন সেলিম হোসেন জানিয়েছেন। এদিকে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার আজ শুক্রবার দুপুরে ওই গ্রামে পরিদর্শনে গিয়ে সার্বিক খোঁজখবর নিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন প্রশাসনের সার্বিক তৎপরতা ও স্বাস্থ্য বিভাগের তদারকিতে বর্তমানে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রনে এসেছে। তবে ২জন জ্বরে আক্রান্ত হলে তাদের ডেঙ্গু পরীক্ষার জন্য স্বাস্থ্যকেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.