কুষ্টিয়ায় প্রিপেইড মিটারের ব্র্যান্ডিং ষ্টেশনের উদ্বোধন



নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে শতভাগ বিদ্যুতের বিকল্প নেই
…প্রকৌশলী মোঃ শফিক উদ্দিন ।ওয়েস্টজোন পাওয়ার ডেভেলপমেন্ট কোম্পানী কুষ্টিয়ার উদ্যোগে গতকাল ওজোপাডিকো চত্বরে প্রিপেইড মিটারের ব্র্যান্ডিং ষ্টেশনের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন ওজোপাডিকো’র খুলনা’র ব্যবস্থপনা পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ শফিক উদ্দিন। বিশেষ অতিথি ছিলেন, ওজোপাডিকো খুলনার নির্বাহী পরিচালক (প্রকৌশল) প্রকৌশলী মোঃ আবু হাসান। সভাপতিত্ব করেন কুষ্টিয়া অঞ্চলের ওজোপাডিকো’র ত্বত্তাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ আরিফুর রহমান।

ফিতা কেটে ও দোয়া মাহফিলের মাধ্যমে উদ্বোধন শেষে ওজোপাডিকো’র কুষ্টিয়ার সভাকক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ শফিক উদ্দিন গণমাধ্যমকর্মীসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষের সাথে মতবিনিময় করেন। এ সময় প্রিপেইড মিটার সংক্রান্তসহ কুষ্টিয়ায় বিদ্যুৎ উন্নয়নের নানা দিক নিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ শফিক উদ্দিন। তাকে সহযোগিতা করেন কুষ্টিয়া অঞ্চলের ওজোপাডিকো’র ত্বত্তাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ আরিফুর রহমান। মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন ওজোপাডিকো কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী প্রণব চন্দ্র দেবনাথ, কুষ্টিয়া চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র পরিচালক ও বাংলাদেশ অটো রাইচ মিল ওনার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি হাজী ওমর ফারুক, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব কেপিসি’র সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, কোষাধ্যক্ষ মিলন উল্লাহ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাহমুদ হাসানসহ ওজোপাডিকোর কর্মকর্তা ও গ্রাহকগণ। সেখানে বক্তারা বলেন, কুষ্টিয়ায় নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের মাধ্যমে এই জেলার শিল্পখাতকে এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে বলিষ্ঠ ভুমিকা রাখছে ওজোপাডিকো।

একই স্থানে সেবার মাধ্যমে গ্রাহক হয়রানীর অবসান হয়েছে। দালালচক্র নির্মুল হয়েছে। ঘুষ-দুর্নীতির বিরুদ্ধে মাঠে নামার সময় ওজোপাডিকো’র কুষ্টিয়ার কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার আর ষড়যন্ত্রের জাল বিছিয়েছিলো কুচক্রীমহল। কুষ্টিয়ার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষসহ গণমাধ্যমকর্মীরাও এই ষড়যন্ত্রের জাল ছিন্ন করে প্রকৃত সেবা নিশ্চিত করার চলমান অভিযানের সাথে একাত্ম হয়েছে। এ সময় ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ শফিক উদ্দিন বলেন, অটোমেশনের মাধ্যমে গ্রাহকসেবা জনগনের দোরগোড়ায় নিয়ে যাওয়া হবে। প্রিপেইড সম্পর্কে কিছু মানুষ গুজব ছড়াচ্ছে।

মূলতঃ এই ব্যবস্থা চালু হলে সবচেয়ে বেশী উপকৃত হবেন গ্রাহকেরা। কারণ তারা যে পরিমান টাকার বিদ্যুৎ ব্যবহার করতে আগ্রহ প্রকাশ করবেন সেই টাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে বিল। অতিরিক্ত বিল হওয়ার কোন সুযোগ থাকবে ন। তিনি আরও বলেন, কুষ্টিয়ার শিল্পাঞ্চলসহ এই নগরীকে আগামীতে বিদ্যুৎ নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে নানা প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.