এলজিইডি’র প্রতিষ্ঠাতা প্রধান প্রকৌশলী কামরুল ইসলাম সিদ্দিকির ১১ তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক : গ্রামীণ অবকাঠামো উন্নয়নের রূপকার ও পথিকৃৎ এলজিইডির প্রতিষ্ঠাতা প্রধান প্রকৌশলী, দেশের কৃতিসন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধা কামরুল ইসলাম সিদ্দিক’র ১১তম মৃত্যু বার্ষিকী ছিল গতকাল রবিবার। এ উপলক্ষ্যে বিকেল সাড়ে ৫টায় কামরুল ইসলাম সিদ্দিক’র নিজ জেলা কুষ্টিয়ায় এলজিইডি ভবনের নতুন মসজিদে এলজিইডি কুষ্টিয়ার আয়োজনে তার স্মৃতিচারণ ও রুহের মাগফেরাত কামনায় দোওয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এতে কামরুল ইসলাম সিদ্দিকির জীবন ও তার মহত্ব তুলে ধরে স্মৃতিচারণ করেন কুষ্টিয়া এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী এ এস এম শাহেদুর রহিম, প্রয়াত কামরুল ইসলাম সিদ্দিক’র ছোট ভাই প্রকৌশলী ফখরুল ইসলাম সিদ্দিক, এলজিইডি কর্মকর্তা কামরুজ্জামান প্রমুখ। পরে মিলাদ মাহফিলে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত শেষে কামরুল ইসলাম সিদ্দিকির রুহের মাগফেরাত কামনায় দোওয়া করেন হাফেজ মাওলানা শাহাবুল ইসলাম। কুষ্টিয়া এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী এ এস এম শাহেদুর রহিম বলেন, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগে (এলজিইডি) কামরুল ইসলাম সিদ্দিক যে বীজ বপন করেছিলেন, তার ওপর ভিত্তি করেই আজ গ্রামীণ অবকাঠামোর এত উন্নয়ন হয়েছে।

তিনি ছিলেন নিবেদিত প্রাণ ও কর্মবীর। আজ নিম্ন ও মধ্যবিত্ত মানুষের জন্য যে হাউজিং প্রকল্প, সেটা কামরুল ইসলাম সিদ্দিক’র অবদান। তিনি কখনোই অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেননি। কামরুল ইসলাম সিদ্দিক ছিলেন বিভিন্ন কারিগরি বিষয়ে অত্যন্ত বিজ্ঞ ব্যক্তি, তিনি ছিলেন একজন দক্ষ প্রশাসক ও দক্ষ ব্যবস্থাপক। সব মিলিয়ে একজন নিষ্ঠাবান, নিবেদিতপ্রাণ ও নিরলস কর্মী।

Leave a Reply

Your email address will not be published.