স্বামীকে ৩৫ বার ছুরিকাঘাত‘খাবারে লবণ কম হয়েছে’ বলায়

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: বাড়িতে অতিথিরা বেড়াতে আসায় ভালো খাবার পরিবেশন করেছিলেন স্ত্রী। তবে একটি খাবারে লবণ একটু কম হয়েছিল। আর তা বলায় রেগে ঘুমন্ত স্বামীকে ৩৫ বার ছুরিকাঘাতে হত্যা করে স্ত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম রাশিয়ার পেনজা শহরে।

রাশিয়ার আইন প্রয়োগকারী সংস্থার বরাত দিয়ে ডেইলি মেইল জানিয়েছে, স্লেভা ডেভিডকিনকে (৪৩) হত্যা করেছে তার স্ত্রী এভগেনিয়া (৩১)। এ ঘটনায় এভগেনিয়াকে আটক করেছে পুলিশ।

রাশিয়ান তদন্ত কমিটির এক বিবৃতিতে বলা হয়, পেনজা শহরের বাড়িতে বেড়াতে আসা অতিথিদের জন্য টেবিলে ব্লেন্ড করা একটি খাবার পরিবেশন করেছিলেন এভগেনিয়া। পরিবেশিত ওই খাবারে লবন কম হয়েছিল। তখন স্বামী ডেভিডকিন বলেন তরকারিতে লবণ কমই প্রমাণ করে এভগেনিয়া আমাকে ভালোবাসে না।

‘যদি এভগেনিয়া আমাকে ভালোবাসতো তবে খাবারে আরেকটু লবণ দিতো। আর এ কথা অতিথিরা ঘুমানোর পরেও বলতে থাকেন ডেভিডকিন।’

এ কথা বারবার বলায় ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন এভগেনিয়া। একটা ছুরি নিয়ে স্বামীর ঘুমানোর আগ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে থাকেন। ডেভিডকিন ঘুমিয়ে পড়লে তাকে ৩৫ বার ছুরিকাঘাত করেন তিনি। এটি দেখে ফেলে তাদের চার বছর বয়সী মেয়ে।

৩৫ বার ছুরিকাঘাত করার পর এভগেনিয়া পুরুষ এক অতিথিকে ঘুম থেকে জাগিয়ে তুলে অ্যাম্বুলেন্স আনতে বলেন। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ডেভিডকিনকে হাসপাতালে নেওয়া হলে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। এর পর ছুরিসহ এভগেনিয়াকে আটক করে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, খাওয়া পর মদ পান করায় তিনি উত্তেজিত ছিলেন বলে জানিয়েছে এভগেনিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published.