মায়াবতী নারী সমাজের কলঙ্ক !

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: বহুজন সমাজ পার্টি‎র (বসপা) নেত্রী মায়াবতী ক্ষমতার জন্য এখনও নিজের মর্যাদা বিক্রি করে চলেছেন। তিনি নারী সমাজের কলঙ্ক বলে মন্তব্য করেছেন উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক সাধনা সিং। গতকাল শনিবার মায়াকে আক্রমণ করতে গিয়ে এমন কুরুচিকর মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন এই নেত্রী।
সাধনা বলেন, ‘মায়াবতীর কোনো আত্মমর্যাদাবোধ নেই। ওকে একপ্রকার শ্লীলতাহানি করা হয়েছিল। এখনও তা হচ্ছে। আর এই নারী ক্ষমতার জন্য এখনও নিজের মর্যাদা বিক্রি করে চলেছেন। নারী সমাজের কলঙ্ক মায়া। একজন হিজড়া থেকেও খারাপ মায়াবতী।’

ভারতের শীর্ষস্থানীয় একাধিক গণমাধ্যম জানিয়েছে, এক জনসভায় ভাষণ দিতে গিয়ে মুঘলসরাইয়ের বিধায়ক সাধনা সপা-বসপা নেতাদের ‘গেস্ট হাউস’ সংঘর্ষের কথা টেনে আনেন সাধনা। ওই ঘটনায় মায়াবতীসহ বসপার অন্যান্য নেতাদের ওপরে সপা নেতারা হামলা করেন। ওই ঘটনায় মায়াবতীর ‘চিরহরণ’ করা হয় বলে অভিযোগ করেন সাধনা।

এদিকে ওই ঘটনার প্রবল প্রতিবাদ করেছে বসপা। দলের নেতা সতীশ মিশ্র বলেন, ‘বসপা-সপা জোট বিজেপির জমি নাড়িয়ে দিয়েছে। বিজেপি নেতাদের এখন মাথা খারাপ হয়ে গেছে। আমাদের নেত্রী সম্পর্কে বিজেপি বিধায়ক যে কথা বলেছেন তাতে ওদের মানটা বোঝা যায়। ’

তিনি আরও বলেন, ‘বিজেপি এখন বসা-বসপা জোটকে ভয় পাচ্ছে। ওরা উত্তরপ্রদেশে একটা আসনও পাবে না। এই ধরনের মানুষকে মানসিক হাসপাতালে ভর্তি করা উচিত।’

সাধনা সিংয়ের মন্তব্য নিয়ে অখিলেশ বলেন, ‘মায়াবতীজিকে অপমান মানে আমাকেও অপমান। মায়াবতীর বিরুদ্ধে এই ধরনের কুকথা দেশের নারীদেরও অপমান। ওই ধরনের মন্তব্য বিজেপির অসহায়তা বুঝিয়ে দেয়।’
মায়াবতীর বিরুদ্ধে ওই ধরনের মন্তব্যে চটেছে কংগ্রেসও। দলের মুখপাত্র প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী বলেন, রাজনৈতিক বিশ্বাসের তফাৎ থাকতে পারে। কিন্তু একজন নারী মুখ থেকে ওই ধরনের মন্তব্য খুবই দুর্ভাগ্যজনক।

Leave a Reply

Your email address will not be published.