গ্রেপ্তার ৫,চিতার মাংসে পিকনিক করে

অনলাইন ডেস্ক: পিকনিক কিংবা বনভোজন নিয়ে আগ্রহের কমতি নেই বেশিরভাগ মানুষের। এ ধরনের আয়োজন উদ্যোগী হলেই সামনে আসে খাবারের প্রসঙ্গটি। কিন্তু সেই আয়োজনে থাকে যদি চিতা বাঘের মাংস! তাহলেই তো তিল থেকে তাল। এরকমই একটি ঘটনা ঘটেছে ভারতের গোরুমারাতে। পিকনিকে ভিন্ন ধরনের রেসিপি রাখতে চিতাবাঘ শিকার করেন চোরা শিকারিরা। কিন্তু শেষ অবধি সে মাংস খাওয়ার ইচ্ছে মিটলেও, চামড়া বিক্রি করতে গিয়েই ধরা পড়ে যান তারা।
গতকাল রোববার ভারতের জলপাইগুড়ি জেলার গোরুমারা জাতীয় উদ্যান এলাকা থেকে স্কুল ব্যাগ থেকে চিতা বাঘের চামড়াসহ পাঁচ জনকে গ্রেপ্তার করেন বন দপ্তরের কর্মকর্তারা। কয়েকদিন আগেই চিতাবাঘটি শিকার করা হয়েছে বলে রক্তমাখা চামড়া দেখে ধারণা করেন কর্মকর্তারা।

আটককৃতরা হলেন, কিষান তামাং(৩৭), মোহন মুন্ডা (২৮), সঞ্জয় অধিকারী (২২), রঞ্জিত মোহন্ত (২৪) এবং বিকাশ রাই (৩০)।

এর আগে গোরুমারার ভিতরে গন্ডার শিকার করে খড়্গ কেটে নেওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছিল। তবে চিতার মাংস দিয়ে বনভোজন করা রীতিমত বন দপ্তরকে ভাবিয়ে তুলেছে।

জলপাইগুড়ি বৈকুণ্ঠপুর বনবিভাগের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স-এর রেঞ্জার সঞ্জয় দত্তের নেতৃত্বে চিতার চামড়াটি উদ্ধার করা হয়। মোটরবাইকে করে এটি পাচার করা হচ্ছিলো নেপালে। তার আগেই চিতার মাংস রান্না করে খাওয়ার কথা স্বীকার করেন অভিযুক্তরা। ১০ ফুট দৈর্ঘ্যের চামড়াটি আনুমানিক ১০ লাখ টাকায় বিক্রি করার পরিকল্পনা ছিল চোরা শিকারিদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.