ব্রিটিশ পার্লামেন্টের বিধি টিউলিপের জন্য পাল্টাল

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: ব্রিটিশ পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব কমন্সে এমপিদের ভোট প্রদানের বিধি অবশেষে পাল্টানো হয়েছে। ব্রিটিশ গণমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, এর ফলে এখন থেকে কোনো এমপি অন্তঃসত্ত্বা, মাতৃত্বকালীন বা পিতৃত্বকালীন ছুটিতে থাকলে তিনি হাউসে উপস্থিত না হয়েও প্রতিনিধির মাধ্যমে (প্রক্সি ভোটিং) ভোট দিতে পারবেন।

মূলত বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত এমপি টিউলিপ সিদ্দিকের দাবির পরিপ্রেক্ষিতেই যুক্তরাজ্য পার্লামেন্ট এ ভোটদান বিধি পরিবর্তন করেছে বলে জানা গেছে।এর আগে ব্রেক্সিট প্রশ্নে গত ১৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মের প্রস্তাবিত খসড়া চুক্তিটি পাসের জন্য হাউস অব কমন্সে ভোট অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে অন্তসঃত্ত্বা অবস্থায়ও হুইলচেয়ারে করে ভোট দিতে উপস্থিত হয়ে সবাইকে চমকে দেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বোন শেখ রেহানার মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিক। এর পর থেকেই পার্লামেন্টের এ ভোটদান বিধি পাল্টানোর বিষয়ে সরব হন অন্য এমপিরা। এ সময় পার্লামেন্টের এ নিয়ম পরিবর্তনের দাবি জানান টিউলিপ। তার দাবির পরিপ্রেক্ষিতেই গত সপ্তাহে হাউস অব কমন্সে বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয়।ব্রিটিশ পার্লামেন্টের এ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের আগে গত ১৭ জানুয়ারি পুত্রসন্তানের মা হন টিউলিপ।

ছেলের নাম তিনি রেখেছেন রাফায়েল মুজিব সেইন্ট জন পার্সি। ইতিমধ্যেই বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ রেহানার নাতি রাফায়েলের নাম ঢুকে গেছে হাউস অব কমন্সের নথিতে।এদিকে হাউস অব কমন্সে প্রতিনিধির মাধ্যমে ভোট দেওয়ার বিধি পাস হওয়াকে স্বাগত জানিয়েছেন টিউলিপ। এক টুইটে তিনি বলেন, ২০১৫ সালের নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পরই আমি প্রক্সি ভোটিংয়ের বিষয়টি উত্থাপন করেছিলাম। কিন্তু তখন আমাকে অনেকেই বলেছিলেন, চেষ্টা করে লাভ হবে না। কমন্সের বিধি পাল্টাবে না। কিন্তু আজ সে বিধি পাল্টেছে। এখন থেকে নতুন বাবা-মা হওয়া এমপিরাও ভোট দিতে পারবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.