চিকিৎসকের পরামর্শ ,শিশুকে ‘গাঁজার বিস্কুট’ খাওয়ানোর !

অনলাইন ডেস্ক: স্কুলে সকলের সঙ্গে খারাপ আচরণ করতো চার বছরের এক শিশু। অতিরিক্ত রাগের কারণে তার এমন খারাপ আচরণের অভ্যাস হয়। শেষমেশ উপায় না পেয়ে শিশুকে নিয়ে চিকিৎসকের দারস্থ হন বাবা। রাগ কমাতে শিশুকে গাঁজার বিস্কুট খাওয়ানোর পরামর্শ দেন ওই চিকিৎসক।

এদিকে ঘটনার পর নিজের লাইসেন্স টিকিয়ে রাখা নিয়ে বিপাকে পড়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের ন্যাচারাল মেডিসিন ফিজিসিয়ান ডা. উইলিয়াম এইডেলম্যান।

ডা. উইলিয়াম এইডেলম্যান জানান, অল্প ডোজের গাঁজা সেবন করানো হলে শিশুদের রাগ নিয়ন্ত্রণে থাকে। তবে তিনি ভুল করে শিশুটিকে দ্বিধাবোধ এবং মনোযোগ ঘাটতি ব্যাধিতে ভুগছে বলে মনে করেছিলেন।

শিশুটি স্কুলে দুর্ব্যবহার করায় তার বাবা ২০১২ সালের সেপ্টেম্বরে এইডেলম্যানের সঙ্গে পরামর্শ করেন। তখন তিনি শিশুটিকে অল্প পরিমাণে গাঁজা সেবন করানোর পরামর্শ দেন। তবে বিষয়টি প্রকাশ পায় লাঞ্চটাইমে শিশুটিকে গাঁজা দিয়ে তৈরি বিস্কুট দেওয়া যাবে কিনা স্কুল নার্সের কাছে জানতে চাওয়া হলে।

শিশুকালে এই শিশুর বাবার মনোযোগ ঘাটতি বা অতি চঞ্চলতার ব্যাধি ছিল। তার বেলায় ডাক্তার যে পরামর্শ দেয়, সেটি মোটেও ইতিবাচক ছিল না। তখন তিনি নিজেকে ‘হিউম্যান গিনিপিগ’ মনে করতেন।

তিনি পরবর্তী জীবনে গাঁজা সেবন শুরু করেন বলে জানান। এটি তাকে শান্ত রাখতো এবং একপর্যায়ে এর ফলে স্ত্রীর সঙ্গে তার দুর্ব্যবহার করা বন্ধ হয়। গাঁজা সেবনের ইতিবাচক প্রভাব আছে বলে জানান তিনি।

ডা. এইডেলম্যানের চিকিৎসা নিয়ে ক্যালিফোর্নিয়াতে একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। ওই বোর্ড বলছে শিশুটির রোগ নির্ণয়ে ভুল করেছেন এই চিকিৎসক। শিশুটিকে গাঁজা দেওয়ার জন্য নয়, তবে ভুল রোগ নির্ণয়ের জন্য তার ডাক্তারি লাইসেন্স বাতিল করার সুপারিশ করে বোর্ড।

গত ৪ জানুয়ারি তার লাইসেন্স বাতিলের নির্দেশের বিরুদ্ধে আবেদন করেন ডা. এইডেলম্যান। তিনি প্র্যাকটিস চালিয়ে যাবেন বলে জানান। পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত এইডেলম্যানের লাইসেন্স বাতিলের আদেশ স্থগিত করা হয়েছে বলে জানান তার আইনজীবীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.