বার্সেলোনা যাঁকে নিয়ে চমকে দিল

ক্রিয়া প্রতিবেদন: লুইস সুয়ারেজ কখনো ফর্মে থাকেন, কখনো ফর্মের সঙ্গে লড়েন। উসমান ডেম্বেলে একটু চোটপ্রবণ। একা লিওনেল মেসির ওপর বেশ ধকল যায় এতে। তো সেই চিন্তা থেকে একজন বিকল্প ফরোয়ার্ড নেওয়ার কথা বেশ কিছুদিন ধরে ভাবছিল বার্সেলোনা। কিন্তু যাঁকে নিয়েছে বার্সা, সেই নামটা একটু চমক জাগাতে পারে। সাসসুয়োলো ফরোয়ার্ড কেভিন-প্রিন্স বোয়াটেং ছয় মাসের জন্য ধারে এসেছেন বার্সেলোনায়। ৩১ বছর বয়সী ঘানাইয়ান ফরোয়ার্ডকে পরে পাকাপাকি কিনে নেওয়ার ধারাও রাখা হয়েছে চুক্তিতে।

টটেনহাম, ডর্টমুন্ড ও মিলানের সাবেক ফরোয়ার্ডের কাছে লা লিগা অচেনা নয়। এর আগে ২০১৬-১৭ মৌসুমে লাস পালমাসের হয়ে খেলেছেন। ওই মৌসুমে পালমাসের হয়ে ২৮ ম্যাচে করেছিলেন ১০ গোল। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে বার্সেলোনা হবে বোয়াটেংয়ের দশম ক্লাব। স্কাই স্পোর্টসের দাবি, গতকালই সাসসুয়োলো সতীর্থদের কাছ থেকে বিদায় নিয়েছেন বোয়াটেং। চুক্তির আনুষ্ঠানিকতা শেষ হতে আরও দু-এক দিন লেগে যেতে পারে। সে ক্ষেত্রে সেভিয়ার বিপক্ষে আগামীকাল কোপা ডেল রের ম্যাচে হয়তো খেলার সুযোগ নেই বোয়াটেংয়ের, তবে রোববার লা লিগায় জিরোনার বিপক্ষে ম্যাচে অভিষেক হতে পারে তাঁর।

মুনির এল হাদ্দাদি সেভিয়ায় যোগ দেওয়ার পর থেকেই তাঁর বদলি হিসেবে একজনকে খুঁজছিল বার্সেলোনা। শুরুতে শোনা যাচ্ছিল জিরোনার ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ান স্টুয়ানির নাম। কিন্তু সেই আলোচনা বেশি দূর এগোয়নি। পরে বার্সার সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে চেলসি ফরোয়ার্ড আলভারো মোরাতার নাম। তবে এখন শোনা যাচ্ছে মোরাতা বার্সেলোনায় নয়, ধারে যাচ্ছেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে। তাঁকেও পরে পাকাপাকি কিনে নেওয়ার সুযোগ থাকছে অ্যাটলেটিকোর। গোল ডটকমের খবর, এরই মধ্যে অ্যাটলেটিকোর সঙ্গে কথাবার্তা পাকা হয়ে গেছে মোরাতার। চেলসিতে এই মুহূর্তে যে বেতন পান (সপ্তাহে ১ লাখ ২০ হাজার পাউন্ড) তার চেয়ে একটু কম বেতনেই অ্যাটলেটিকোতে যেতে রাজি হয়েছেন মোরাতা।

ওদিকে মোরাতাকে ধারে পাঠিয়ে চেলসি জুভেন্টাসের কাছ থেকে ধারে আনছে গঞ্জালো হিগুয়েইনকে। আপাতত যিনি জুভেন্টাস থেকে ধারে খেলছেন এসি মিলানে। মোরাতার মতোই তাঁকে চাইলে পরে পাকাপাকিভাবে কিনে নিতে পারবে চেলসি। চেলসির বর্তমান কোচ মরিসিও সারির অধীনে নাপোলিতে খেলেছেন আর্জেন্টাইন এই ফরোয়ার্ড। ২০১৫-১৬ মৌসুমে সারির নাপোলিতেই হিগুয়েইন কাটিয়েছেন তাঁর ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা মৌসুম। লিগে ৩৫ ম্যাচে করেছিলেন ৩৬ গোল, সব মিলিয়ে ৪২ ম্যাচে ৩৮ গোল। সাবেক প্রিয় শিষ্যকে দলে ভেড়াতে সারির আগ্রহের কারণ সম্ভবত এটাই। শোনা যাচ্ছে, চেলসিতে হিগুয়েইনের সাপ্তাহিক বেতন হতে পারে ২ লাখ ৭০ হাজার পাউন্ড। মিলানের দ্বিগুণ!

আরেকটি কারণেও হিগুয়েইনের দিকে হাত বাড়িয়েছে চেলসি। তাদের দুই ফরোয়ার্ডের মধ্যে মোরাতা লিগে এখন পর্যন্ত ১৬ ম্যাচে করেছেন ৫ গোল। আর অলিভিয়ের জিরু ১৮ ম্যাচে করেছেন মাত্র ১ গোল। একজন ভালো ফরোয়ার্ডকে নেওয়া খুব দরকার চেলসির। তবে যে হিগুয়েইনকে সারি নাপোলিতে পেয়েছেন, ইদানীং তাঁকে সেভাবে দেখা যাচ্ছে কোথায়! মিলানের হয়ে সিরি ‘আ’তে ১৫ ম্যাচে মাত্র ৬ গোল করেছেন, সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ২২ ম্যাচে ৮ গোল। খুব আহামরি নয়, কিন্তু জিরু-মোরাতাদের চেয়ে তো ভালো!

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin
Share:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *