নারীসহ তিন মুসলিমকে গণপিটুনি , গরুর মাংস বহনের অভিযোগে ভারতে

অনলাইন ডেস্ক : গরুর মাংস বহনের অভিযোগে ভারতে এক নারীসহ তিন মুসলিমকে গণপিটুনির অভিযোগ উঠেছে তথকথিত গোরক্ষদের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপাল থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরে সিউনি এলাকায়। ঘটনার সময় ঐ মুসলিমদেরকে জোর করে ‘জয় শ্রী রাম’ বলতে বাধ্য করা হয়।

পুলিশ জানায়, গত ২২মে একটি সিএনজি করে ঐ তিন মুসলিম গরুর মাংস নিয়ে যাওয়ার পথে গোরক্ষকদের একটি দল তাদের পথ আটকায়। তারা পুলিশে খবর দেওয়ার পরিবর্তে নিজেরাই আইন হাতে তুলে নেয়। এতে আটক মুসলিমদের প্রত্যেকের ওপর নেমে আসে নির্মম নির্যাতন। চারদিন আগে ঘটলেও শুক্রবার রাতে এক ভিডিওতে ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই শোরগোল পড়ে যায়। ঐ ভিডিওটিতে দেখা যায়, দুই মুসলিম যুবককে একটি গাছের সাথে বেঁধে লাঠি দিয়ে পেটানো হচ্ছে। তাদেরই একজনের স্ত্রীকে জুতা দিয়ে মাথায় অনবরত আঘাত করা হচ্ছে। আর চোখে দেখলেও এ ঘটনার প্রতিবাদ করতে এগিয়ে আসেনি এলাকার কোনো পথচারী।

ভিডিওটিতে গোরক্ষদের ‘জয় শ্রী রাম’ বলে স্লোগানও দিতে দেখা যায়, ঐ মুসলিমদের বলাতে বাধ্য করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ নিজেই বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে। আটক চার জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে পাঠানো হয়েছে। দ্রুতই তাদের আদালতে তোলা হবে। 

জানা গেছে, শুভম সিং নামে অভিযুক্তদের একজন নিজেকে ‘রাম সেনা’ সদস্য বলে দাবি করেছেন এবং গত ২৩ মে তার ফেসবুকে ভিডিওটি আপলোড করেন। যদিও ফেসবুক থেকে পরে ভিডিও সরিয়ে ফেলা হয়। ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন : https://www.youtube.com/watch?time_continue=21&v=ItmQSS8kIXs

Leave a Reply

Your email address will not be published.