সিংহকে গলা টিপে হত্যা !

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক: সিংহের আক্রমণে মর্মান্তিক মৃত্যুর শিকার হয়েছেন এমন মানুষের সংখ্যা নেহাত কম নয়। তবে সেই সিংহকেই শ্বাসরোধ করে আত্মরক্ষার অভিজ্ঞতা কয়জনেরইবা আছে।  গত সোমবার এমনই এক বিরল ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের কলোরাডো প্রদেশের হর্সটুথ পর্বতে।

কলোরাডো পার্কস অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফের মুখপাত্র রেবেকা ফেরেল জানান, গত সোমবার বিকেলে পর্বতের ওয়েস্ট রিজ ট্রেলের পাহাড়ি রাস্তায় দৌঁড়াতে বেরিয়েছিলেন এক ব্যক্তি। দৌঁড়ানোর সময় হঠাৎই পিছনে একটা গর্জনের আওয়াজ পান। কিসের আওয়াজ সেটা ঘুরে দেখতেই চোখের নিমেষে তার উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে প্রায় ৩৭ কেজি ওজনের একটি পাহাড়ি সিংহ।

দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রতিরোধ করার সুযোগই পাননি ওই ব্যক্তি। ততক্ষণে তার মুখে কামড় বসিয়ে দিয়েছে সিংহটি। সর্বশক্তি দিয়ে নিজেকে সিংহের কবল থেকে মুক্ত করার চেষ্টা করেন। নিজেকে বাঁচাতে শেষমেশ সিংহের গলা টিপে ধরেন। আর তাতেই শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যু হয় সিংহটির।

হাসপাতালের বেডে শুয়ে এমনই দাবি করেছেন আক্রান্ত ওই ব্যক্তি।  চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তির মুখে গভীর ক্ষত রয়েছে। হাত, পা ও শরীরের অন্য অংশেও কেটে গেছে।

রেবেকা ফেরেল জানিয়েছেন, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট বলছে শ্বাসরোধ হয়েই মৃত্যু হয়েছে সিংহটির। পাশাপাশি তিনি আরও জানান, কলোরাডোর ওই এলাকায় কুগারের (পাহাড়ি সিংহ) আনাগোনা লেগেই থাকে। যারা সাইক্লিং বা দৌঁড়ানোর জন্য যান তাদের সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েই যেতে বলা হয়।

কলোরাডো পার্কস অ্যান্ড ওয়াইল্ডলাইফ সূত্রে জানানো হয়েছে, কুগাররা সচরাচর হামলা করে না। শান্ত স্বভাবের এরা। তবে সম্প্রতি বেশ কয়েকটি হামলার ঘটনা ঘটেছে। তাতে মৃত্যুও হয়েছে কয়েক জনের। আর বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই দেখা গেছে, সিংহগুলো হামলা চালিয়েছে সেগুলো প্রাপ্তবয়স্ক নয়। এই ব্যক্তির ক্ষেত্রেও হামলাকারী সিংহটি প্রাপ্তবয়স্ক ছিল না বলে আরও জানান এই কর্মকর্তা।

Facebooktwittergoogle_plusredditpinterestlinkedin
Share:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *