কোহলির আচরণে ফুঁসে উঠেছেন ভক্তরা

ক্রিয়া ডেস্ক: ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাস, উরির ক্ষত এখনও দগদগে। বছর তিনেকও হয়নি, ফের নাশকতা! অতর্কিত জঙ্গি হামলায় পুলওয়ামায় শহিদ হল ৪৪ জন সেনা জওয়ান। গোটা দেশ ক্ষোভে ফুঁসছে। ১৩০ কোটির দেশ বদলা চায়।

ভ্যালেন্টাইন সন্ধ্যা থেকে পাকিস্তানকে বিশ্ব মানচিত্র থেকে মুছে ফেলতে জোট বাঁধছে ফেসবুক, টুইটার। আলোচনা ও রক্তপাত একই সঙ্গে চলতে পারে না, এই বার্তা এসেছে সরকারের তরফেও।এই অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতিতে কিনা প্রমোশনাল টুইট করে বসেছেন বিশ্ব ক্রিকেটের রোল মডেল বিরাট কোহলি। বিরাটের টুইটে আছে ভ্যালেন্টাইন ডে-ও। পাশে দাঁড়িয়ে আনুশকা। ওপরে লেখা, ‘অ্যাবাউট লাস্ট নাইট উইথ মাই ভ্যালেন্টাইন।’

এরপর যা হওয়ার তাই হল। ভ্যালেন্টাইন ডে-কে ব্ল্যাক ডে ঘোষণা করা মানুষগুলো রে রে করে উঠলেন। এদের মধ্যে অনেকেই হয়ত পুলওয়ামা না ঘটলে বিরাট-আনুশকার ছবিই সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে বোল্ড অক্ষরে লিখতেন ‘লাভ গোল’।

যদিও পরে পুলওয়ামায় নিহত জওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে টুইট করেছেন ভারতীয় অধিনায়ক। টুইটে বিরাট লিখেছেন, “পুলওয়ামার ঘটনায় আমি বাকরুদ্ধ। শহিদ জওয়ানদের পরিবারের উদ্দেশে আমার সমবেদনা রইল। আহত জওয়ানদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করি।”

অন্যদিকে গৌতম গম্ভীরকে দেখুন। দেশপ্রমিক গৌতির গম্ভীর গম্ভীর টুইট তাতিয়ে দিচ্ছে নেটিজেনদের। সে যাই থাকুক, টুইটে রীতিমতো যুদ্ধ ঘোষণার পথে হেঁটেছেন প্রাক্তন এই ভারতীয় ক্রিকেটার। পাকিস্তানের সঙ্গে অবশ্যই কথা বলা উচিত, তবে তা টেবিলে নয়। এবার কথা হবে রণক্ষেত্রে। গৌতির এই টুইটে আগুন লেগেছে সোশ্যাল সাইটে।

আর হার্ডিক পান্ডিয়া? কফি উইথ করণে কলঙ্ক লাগিয়ে বাড়ি ফেরা ছেলেটা হাঁটল একেবারে অন্যপথে। ৪৪ জন শহিদের উদ্দেশে মোমবাতি জ্বালিয়ে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করলেন তিনি। পাল্টে গেছে তার সোশ্যাল অ্যাকাউন্টগুলোর ডিপি। টুইটে সমবেদনা জানিয়ে পান্ডিয়া লিখেছেন, “পুলওয়ামার ঘটনায় আমি ব্যথিত। দেশের জন্য যে সিআরপিএফ জওয়ানরা প্রাণ দিয়েছেন তাদের পরিবারের পাশে আছি। আসুন এই অন্ধকার সময়ে ওদের পরিবারের পাশে দাঁড়াই এবং প্রার্থণা করি।”

সূত্র: জি নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published.