কুষ্টিয়ায় উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রশিক্ষণের উদ্বোধন


সরকার চায় না শিক্ষিত তরুণ শুধু চাকরি খুঁজবে////জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন  

কুষ্টিয়াঃকুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন বলেছেন, সরকার চায় না শিক্ষিত তরুণ শুধু চাকরি খুঁজবে, বরং তারা নতুন চাকরির ব্যবস্থা করবে। সে জন্য দেশে স্টার্টআপ সংস্কৃতি গড়ে তোলা দরকার। আর তারই ধারাবাহিকতায় উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা চালু করেছে।


বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ’র (বিডা) ও উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প কুষ্টিয়ার আয়োজনে ‘তারুণ্যের শক্তি-বাংলাদেশের সমৃদ্ধি’ এই প্রতিপাদ্যকে তুলে ধরে এক মাস মেয়াদী প্রশিক্ষণ কার্যকরমের উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
তিনি বলেন, উদ্যোক্তাদের পরিশ্রমি হতে হবে,  সৃজনশীলতায় পরিপক্ক হয়ে দেশের উন্নয়নে কাজ করতে হবে।নতুন নতুন উদ্ভাবনকে কাজে লাগিয়ে মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবে এবং সমাজ ও দেশের জন্য কাজ করবে।এজন্য এই প্রশিক্ষণালব্ধকে কাজে লাগাতে হবে। উদ্যোক্তাকে বিনিয়োগ করবে সরকার-যোগ করেন তিনি।


উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ আজাদ জাহানের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি রবিউল ইসলাম, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা।


স্বাগত বক্তব্য রাখেন উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প কুষ্টিয়ার প্রশিক্ষক জাফর আহমেদ।
বক্তারা বলেন, ‘এ প্রকল্পের তরুণ প্রশিক্ষকদের মূল কাজ হচ্ছে ভবিষ্যৎ নির্মাণ, অতীতে শ্রম নির্ভর কর্মকাণ্ডের ওপরে উন্নয়ন নির্ভর করত কিন্তু এখন প্রযুক্তি ও জ্ঞান নির্ভর সমাজ। আরও অনেক দূর যাবো, আমাদের যেতে হবে; তাই এখন থেকেই  প্রস্তুতি নিতে হবে ভবিষ্যৎ বিনির্মাণের। উন্নয়নের জন্য বিনিয়োগ দরকার, চাকরি খোঁজা নয়, চাকরিদাতায় রূপান্তর  হতে হবে।’ প্রশিক্ষণকে কাজে লাগাতে পারলেই কেবল ব্যাক্তি জীবনে সফলতা লাভ করা যায়। আর ব্যাক্তি জীবনে সফলতা আসলেই কেবল পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্র সকল ক্ষেত্রেই সফলতা লাভ করবে।


২০২০ সালের মধ্যে প্রান্তিক মাঠ পর্যায়ে ২৪,০০০ উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে ‘উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প’এর কুষ্টিয়ায় প্রথম পর্যায়ে ২৫ জন অংশগ্রহণ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.